হাঁটু ও কনুইয়ে কালচে দাগ? দূর করুন ঘরোয়া পদ্ধতিতে

dark spot

আমরা প্রায় সকলেই নিজেদের মুখের যত্ন নিয়েই ব্যস্ত থাকি। আমাদের কনুইয়ের কালচে দাগ নিয়ে আমরা প্রায় কেউই মাথা ঘামাই না। কিন্তু কনুইয়ের এই কালচে দাগ বড়ই বেমানান। এই দাগ সহজে যেতেও চায়না। তবে কয়েকটি ঘরে তৈরি প্যাক আছে যা এই কালচে দাগ সহজেই দূর করতে পারবে। এই কালচে দাগ দূর করার কিছু উপায় রইলো আপনাদের জন্য।

১ চামচ চিনি জলে গুলে রস করে নিন। এবার ১ টি পাতি লেবু নিন ও সমান দু ভাগ করে কেটে ফেলুন। অর্ধেক পাতিলেবুর মধ্যে চিনির রস দিয়ে কনুইয়ে ১০ মিনিট ভালো করে ঘোষুন, ও তারপর ধুয়ে নিন। এভাবে সপ্তাহে ২-৩ দিন করুন ফল পাবেন। এই পদ্ধতিতে ঘাড়, পিঠ ও হাঁটুর কালচে দাগও দূর করা যাবে।

১ চামচ টকদই, ১ চামচ বেসন, ১ চামচ পাতিলেবুর রস ও ১ চামচ চিনি এই সব উপকরণ একটি পাত্রে নিন ও ভালো করে মেশান। এরপর কনুইয়ে দিয়ে ১০ মিনিট মালিশ করুন। তারপর পাঁচ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন ভালো করে। সপ্তাহে ২ দিন এই প্যাক লাগান, দ্রুত ফল পাবেন।

আরও পড়ুনঃ সর্দি-কাশি ও শরীরের বাড়তি মেদ কমাতে খান কাঁচা হলুদ, দেখে নিন এটি খাবার উপায়

১ চামচ চিনি ও ১ চামচ অলিভ অয়েল নিন ও ভালো করে মেশান। এরপর কনুইয়ে লাগিয়ে ১০ মিনিট ভালো ভাবে মালিশ করুন। এরপর ৫ মিনিট রেখে ধুয়ে নিন। দ্রুত ফল পাবেন। এই প্যাক স্ক্রাবিং করার জন্য হাত ও পায়ের যেকোনো অংশেই ব্যবহার করতে পারেন। এক্ষেত্রে উপাদানগুলির পরিমাণ বাড়াতে হবে।

আরও পড়ুনঃ ত্বককে বয়স্কভাব থেকে বাঁচাতে, এড়িয়ে চলুন এইসব খাবার

ত্বককে বয়স্কভাব থেকে বাঁচাতে, এড়িয়ে চলুন এইসব খাবার

skin

ত্বককে বয়স্কভাব থেকে রক্ষা করতে এড়িয়ে চলতে হবে কিছু খাবার। সবাই চায় নিজের ত্বককে সুন্দর ও উজ্জ্বল করে রাখতে। তাতে যাতে কোনোভাবেই বয়সের ছাপ না পড়ে এর জন্য এইসব খাবারগুলি অতিরিক্ত পরিমাণে খাওয়া যাবেনা। দেখে নিন সেই তালিকা।

অতিরিক্ত নুন খাওয়া উচিত নয়। এতে রক্তচাপ বেড়ে যায়। এর ফলে ত্বকে পড়ে বয়সের ছাপ। অতিরিক্ত মদ্যপান করলে আমাদের শরীরে ফ্যাটি অ্যাসিড বেড়ে যায়। শরীরে জলশূন্য হয়ে গেলে তার প্রভাব সরাসরি ত্বকে পড়ে।

অতিরিক্ত মাংস খাওয়ার ফলে শরীরে জমাট বাঁধে টক্সিন। এছাড়াও ভিটামিন ডি এর-মাত্রাও কমে যায় সম্পৃক্ত ফ্যাটের প্রভাবে। অতিরিক্ত মাংস খাওয়াটা একেবারেই উচিত নয়।

ফাস্ট ফুড মানেই ফ্যাটি অ্যাসিডের বাড়বাড়ন্ত। এটি ধমনীতে রক্ত চলাচল বন্ধ করে দেয়। এতে ত্বকে তাড়াতাড়ি বয়সের ভাঁজ পড়ে।

আরও পড়ুনঃ ত্বকের কালচে ভাব দূর করুন মাত্র ১৫ মিনিটে, ঘরের তৈরি ফেস প্যাক

গমে রয়েছে অ্যাডভান্স গ্রাইকেশন অ্যান্ড প্রডাক্ট। এটি ত্বকের কোশগুলির ক্ষতি করে।

বেশিরভাগ এনার্জি ড্রিংক চনমনে করে দেয় আপনার শরীরকে, অতিরিক্ত মাত্রায় কার্বোহাইড্রেট রয়েছে বলে। কিন্তু এর প্রভাবে জলশূন্যতা দেখা যায় শরীরে। এছাড়া থাকে ক্যাফিন যা ক্ষতিকর অতিরিক্ত মাত্রায়।

আরও পড়ুনঃ শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে অবশ্যই খান খেজুর

হাতের ত্বক কি শুষ্ক হয়ে যাচ্ছে! এগুলো মেনে চলুন

Hand care

করোনার মোকাবিলা করতে এখন আমরা সবাই স্যানিটাইজার ব্যবহার করছি। বার বার হাত ধুচ্ছি জল দিয়ে। সাবান ব্যবহার করছি বার বার। তাই হাতের চামড়া দিন দিন হচ্ছে শুষ্ক।

এই সমস্যা থেকে খুব সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়। তার জন্য নিতে হবে হাতের প্রতি যত্ন। গরম জলে অল্প শ্যাম্পু বা ফেসওয়াশ দিয়ে হাত চুবিয়ে রাখুন কিছুক্ষণ তাতে।

আরও পড়ুনঃ বিদ্যুতের বিল দেখে হতবাক! জানুন বিল সাশ্রয়ের উপায়

এরপর হাতটি মুছে নিন ও তাতে ময়েশ্চাইজার মেখে নিন। এটি সপ্তাহে অন্তত তিন দিন করুন। হাতে গ্লিসারিনও মাখতে পারেন।

বেসনের সঙ্গে একটু লেবুর রস দিয়ে হাতে মেখে রাখুন। এভাবে আধঘন্টা রাখুন ও তারপর হাত ধুয়ে ফেলুন। এবার হাত মুছে ক্রিম মেখে নিন।

আরও পড়ুনঃ মেদ নিয়ে সমস্যায় ভুগছেন, সমাধান আপনার হাতের মুঠোয়

ত্বকের কালচে ভাব দূর করুন মাত্র ১৫ মিনিটে, ঘরের তৈরি ফেস প্যাক

skin care

করোনার জেরে প্রায় মুশকিল হয়ে উঠেছে বিউটিপার্লার যাওয়া। তবে চিন্তা নেই বাড়িতেও নেওয়া যেতে পারে ত্বকের সঠিক যত্ন। বাড়িতে বসেই মাত্র পনেরো মিনিটেই দূর করতে পারেন ত্বকের কালচে ভাব, আর পেতে পারেন একেবারে ঝকঝকে ও পরিষ্কার ত্বক।

এর জন্য লাগবে মুলতানি মাটি, একটা পাতি লেবু ও এক চা চামচ হলুদগুঁড়ো। এরপর একটি পাত্রে দুই টেবিল চা চামচ মুলতানি মাটি ও দুই টেবিল চামচ হলুদগুঁড়ো নিন। এবার পাতি লেবুর রস দিন ও ভালো করে মেশান। একটা পেস্ট তৈরি করুন।

আরও পড়ুনঃ চুলের সব সমস্যার সমাধান করতে এবার বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন ONION HAIR OIL

এরপর আপনার মুখ ফেসওয়াশ দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। তারপর গোটা মুখ ও গলায় প্যাকটা লাগিয়ে নিন। এভাবে ১৫ মিনিট রাখুন। তারপর উষ্ণ গরম জল দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। প্রথমবারেই নজরে আসবে তফাত। এভাবেই কম করে সপ্তাহে তিন বার ব্যবহার করুন এই প্যাক।

আরও পড়ুনঃ জেনে নিন নিয়মিত আমলকি খাওয়ার উপকারিতা

ত্বক ঝলমলে কিভাবে করবেন, চট করে দেখে নিন

এখন সবাই অনেক ব্য়স্ত, এই ব্যস্ততার মাঝে ঘরে বসে রূপচর্চার জন্য সময় বার করা খুবই কঠিন। যেটুকু হয় সেটা নামমাত্রই। পার্লারে ভিড় করতে হয় তার জন্যই। এর জন্য খরচ তো হয় তার সাথে নানা রকম রাসায়নিক জিনিস এর পাশ্বপ্রতিক্রিয়ায় ক্ষতি হয় ত্বকের।ঘরোয়া উপাদানে বাড়িতে বসেই বানিয়ে ফেলতে পারেন এমন কিছু ফেসপ্যাক, যা সতেজ করে তুলবে ত্বককে ও তার সাথে সাথে ত্বকে জেল্লা আনবে।

ত্বকের পরিচর্জার জন্য আদি কাল থেকে হলুদ ব্যবহার হয়ে আসছে। ত্বকে উজ্জ্বল আনতে ব্রণ ও র‍্যশের সমস্যা দূর করতে হলুদ সব সময়ই উপকার। মসৃণ ও সুন্দর ত্বক পেতে হলে হলুদের ওপর ভরসা রাখতে পারেন। এর জন্য তিনটি উপায় রইল।

ত্বক উজ্জ্বল করার ৩টি সহজ উপায়

১। বেসন, হলুদ ও গোলাপ জলের প্যাকঃ- বেসন ত্বকের তেল শুষে নিয়ে ব্যাকটেরিয়া মুক্ত রাখে ত্বককে। ফলে ত্বকে ব্রণর প্রবণতা হ্রাস পায়। ২ টেবিল চামচ বেসন, ১/৪ চামচ হলুদ গুঁড়ো ও তার সাথে খানিকটা গোলাপ জল মিশিয়ে নিন একসাথে। প্রথমে জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন তারপর এই পেস্টটি ১০-১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে অপেক্ষা করুন। প্যাক টি শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই ফেসপ্যাকটি সপ্তাহে দু বার ব্যবহার করলে ত্বক উজ্জ্বল ও সতেজ হবে।

২। মধু, হলুদ ও দুধের প্যাকঃ- এই ফেসপ্যাক তৈরি করার জন্য এক চামচ মধু, ১/৪ চামচ গলুদ গুঁড়ো তার সাথে দু চামচ কাঁচা দুধ মিশিয়ে নিতে হবে। প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন এরপর প্যাকটি আলতো হাতে মুখের সব জায়গায় লাগিয়ে নিন ও প্যাকটি ১০-১৫ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকে ব্রণর প্রবনতা কমায় ও ত্বককে কোমল করে তোলে। এই ফেসপ্যাকটি ত্বকের বলিরেখা দূর করে।

৩। মধু, হলুদ ও লেবুর রসের প্যাকঃ- ত্বকের ব্রণর দাগ, কালো দাগ লেবুর রস দূর করতে সাহায্য করে। ত্বকের রোমকূপ সংকুচিত হয়। মধু ত্বকে জলের ভারসাম্য বজায় রাখে ও ব্রণ হওয়ার প্রবণতা হ্রাস করে। ১ টেবিল চামচ মধু, ১/৪ চামচ হলুদের গুঁড়ো ও তার সাথে ১ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এই ফেসপ্যাকটি সপ্তাহে এক বার ব্যবহার করুন। এই প্যাকটি নিয়মিত ব্যাবহার করলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি হবে।