পুলওয়ামা হামলাঃ জঙ্গিদের মিলিত সংগঠন

militant

নয়াদিল্লিঃ পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় সাড়ে ১৩ হাজারের বেশি পাতার চার্জশিট জমা দিয়েছে ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি(NIA)। পাক জঙ্গি সংগঠন জইশ ই মহম্মদ, আল কায়েদা ও তালিবান, এই তিন জঙ্গি সংগঠন একসাথে কাজ করছে, এনআইএ-র তদন্তে উঠে এসেছে এমনই। চার্জশিটে বলা হয়েছে যে, পুলওয়ামা হামলায় মূল অপরাধী উমর ফারুকের ট্রেনিং হয়েছিল আফগানিস্তানের হেলমন্দ প্রদেশে। এই আল কায়েদা ও তালিবান ক্যাম্পে প্রায় ১ হাজার পাকিস্তানি জঙ্গি প্রশিক্ষণ নিয়েছে।

চার্জশিটে বলা হয়েছে যে, জইশ ই মহম্মদ ও লস্কর ই তৈবা জঙ্গিদের আফগানিস্তান পাঠানোর দায়িত্বে রয়েছে। এই জঙ্গিরা পরামর্শদাতা, অস্ত্র প্রশিক্ষণ ও শক্তিশালী বিস্ফোরক তৈরীতে পারদর্শী।

আরও পড়ুনঃ মোবাইল পরিষেবার খরচ বাড়তে চলেছে, ইঙ্গিত দিলেন সুনীল মিত্তল

চার্জশিটে আফগানিস্তানের ক্যাম্পে উমর ফারুকের একটি ছবিও প্রকাশ করেছে এনআইএ। এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, উমর ও পুলওয়ামা কাণ্ডে আরও এক অভিযুক্ত অমর আলভি ও আরেক ব্যাক্তি, সেলফি তুলছে তিনজনে। দ্বিতীয় ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে, একটি অত্যাধুনিক বন্দুক হাতে ছবি তুলছে উমর ফারুক। এটি আল কায়েদা ও তালিবানের মিলিত ক্যাম্পে। এইসব ছবি ও ভিডিও উমরের থেকে উদ্ধার করা মোবাইলেই পেয়েছে এনআইএ। কাশ্মীরে এনকাউন্টারে উমরের মৃত্যুর পরে মোবাইলগুলি এনআইএ নিজের হেফাজতে নেয়।

আরও পড়ুনঃ রাম মন্দির ওড়ানোর ছক, ধৃত আইসিস জঙ্গি ইউসুফ খান

বেআইনিভাবে বাঁধ নির্মাণের বিরুদ্ধে চীন ও পাকিস্তান বিরোধী বিক্ষোভ দেখা গেল

Pakistan Occupied Kashmir

পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের মুজাফারবাদ এলাকাতে সেখানের স্থানীয় বাসিন্দারা চীন ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখায়। জানা গেছে, এই বিক্ষোপের কারণ হল নিলম ও ঝিলম নদীর উপর তৈরি বাঁধকে কেন্দ্র করে।

সোমবার এই নিলম ও ঝিলম নদীর উপর নির্মিত বাঁধ ও কোহালা জল প্রকল্পের বিরোধিতা করে সেখানের স্থানীয় বাসিন্দা এক পদযাত্রার আয়োজন করেন। এই বিক্ষোভের উদ্দেশ্য ছিল জল প্রকল্প ও বাঁধ নির্মানের ফলে পরিবেশের উপর প্রভাবকে মানুষের কাছে তুলে ধরা।

আরও পড়ুনঃ ‘জলস্বপ্ন’ প্রকল্পের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

ফলে টুইটারে #SaveRiversSaveAJK টুইট বিশ্ববাসীর কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

কিছু দিন আগে চীন ও পাকিস্তানের মধ্যে এক চুক্তি হয়ে ছিল। সেই চুক্তির ফলে এই নির্মানকার্জ শুরু হয়। এই জল প্রকল্পটির সম্পুর্ন খরচ ২.৪ বিলিয়ন ডলার।

আরও পড়ুনঃ জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সুরক্ষা বাহিনী ও সন্ত্রাসীদের মধ্যে মুখোমুখি লড়াই

অস্ত্র বহনকারী পাকিস্তানি ড্রোন গুলি করে নামাল বিএসএফ জওয়ান

Pakistani Drone

শনিবার সকালে সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনী (বিএসএফ) জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলায় আন্তর্জাতিক সীমান্তের সীমান্ত ফাঁড়িতে (বিওপি) পানসারে অস্ত্র বহনকারী এক পাকিস্তানি গুপ্তচর ড্রোনকে গুলি করে নামান হয়েছে।

প্রাথমিক প্রতিবেদন অনুসারে, ভোর ৫ টা ১০ মিনিটের দিকে, বিএসএফের হিরানগর বিওপি পানসারের দায়িত্বপ্রাপ্ত (এওআর) অঞ্চলে পাকিস্তানের গুপ্তচর ড্রোনটি চিহ্নিত করা হয়েছিল।

সূত্র অনুযায়ী, এসআই দেবেন্দর সিং 8 রাউন্ড গুলি চালিয়ে সেই অস্ত্র বহনকারী ড্রোনটিকে নামায়।

তিনটি নদীর জল বন্ধ করতে চলেছে ভারত, বঞ্চিত হতে চলেছে পাকিস্তান

Nitin Gadkari

অখন্ড ভারতের ছয়টি প্রধান নদী। সেই নদীগুলির মধ্যে তিনটি নদীর জন ভারত থেকে পাকিস্তানে প্রবাহিত হয়ে থাকে। মোদী সরকার সেই তিন নদীর জলপ্রবাহ বন্ধ করার পথে হাঁটছে। এর রকমই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গড়করি। এই জলপ্রবাহ বন্ধ করে দিতে পারলে সেই জল পাবে জম্মু ও কাশ্মীর, পঞ্জাব, উত্ত্রাখন্ড, দিল্লি ও হিমাচল প্রদেশ।

আরও পড়ুনঃ দিনের পর দিন ধর্ষণের জেরে লকডাউনেই জঙ্গলে ঠাঁই ২ পরিযায়ী শ্রমিকের

মহারাষ্ট্রের নাগপুর থেকে গুজরাতে বিজেপির ভার্চুয়াল জন সমাবেশ বকতৃতা দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গড়করি আরও বলেন, ভারত শান্তি ও অহিংসায় বিশ্বাসী। অন্য দেশের জায়গা দখল করে শক্তিশালি হতে চায় না। এরই মাঝে তিনি আরও বলেন, ‘অখন্ড ভারতে’ ছয়টি নদী ছিল। যেগুলি ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশেই প্রবাহিত হয়। চুক্তির কারনে তিনটি নদীর জল পাকিস্তানে যাবে, আর তিনটি নদীর জল ভারতে থাকবে। কিন্তু ভারতের ভাগের তিনটি নদীর জলও পাকিস্তানেও প্রবাহিত হচ্ছে।

তাই এবার পাকিস্তানে ভারতীয় নদীর জলপ্রবাহ বন্ধ হবে। তিনি জানান, কেন্দ্রীয় সরকার বিজেপি নেতৃত্বাধীনে এই পদক্ষেপ নেওয়ার সাহস দেখিয়েছে। এর আগে কোনো সরকার এই বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। তার সাথে দেশের রাজ্যগুলির মধ্যে যে দ্বন্দ্ব রয়েছে তাও মেটাতে আগ্রহী মোদী সরকার।

আরও পড়ুনঃ ফুলশয্যার রাতেই নববধূকে নৃশংস ভাবে খুন করল স্বামী

পাকিস্তানের উড়েছে ঘুম, গিলগিট ও বালতিস্তানের অফিসিয়াল ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট খুললো ভারত

Gilgit-Baltistan Official Twitter Account

ভারত আর পাকিস্তানের সম্পর্ক ১৯৪৭ এর পর থেকেই যে একবারে ভালো নয় তা বলাই বাহুল্ল। সময়ে সময়ে বার বার ভারতের উপর পাকিস্তান আক্রমন করে এসেছে। বাংলাদেশ ভাগের সময়েও যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছিল ভারত ও পাকিস্তান।

এই বার একধাপ এগিয়ে লাদাখ, গিলগিট ও বালতিস্তানের অফিসিয়াল ট্যুইটার একাউন্ট খুলে ফেললো ভারত সরকার। ফলে সেই খবর রাতারাতি মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে। এতি মধ্যেই বিভিন্ন খবরের মাধ্যমে সেই তথ্য পৌছে যাচ্ছে ভারতের প্রতিটি মানুষের কাছে।

আরও পড়ুনঃ কী এই আত্মনির্ভর ভারত অভিযান?

এই ট্যুইটার একাউন্টের নাম দেওয়া হয়েছে Giltit-Baltistan, Ladakh(U.T.), India । ব্যনারে দেওয়া হয়েছে উজ্জল ভারতের পতাকার ছবি। এতি মধ্যেই সেই একাউন্টে ৩১ হাজার ফলোয়ার ছাড়িয়ে গিয়েছে।

একাউন্ট আরম্ভ করা মাত্রই সেইখানে লাদাখের আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য প্রদান করা হয়েছে। মূলত কেন্দ্র শাসিত ভারতীয় জনতা পার্ট শাসনকালের প্রথম থেকেই সচেষ্ট ছিল। আন্তর্জাতিক সম্পর্কগুলিকে সঠিকভাবে পরিচালিত করার চেষ্টা কেন্দ্রীয় সরকার প্রথম থেকেই করে আসছে। একটু একটু করে পাকিস্তানকে কোণঠাসা করে চলেছে ভারত। তাই এক বড় পদক্ষেপ নিয়েই শুরু হয়েছে এই ট্যুইটার একাউন্ট।

ফলে এখন পাকিস্তানের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিয়েছে ভারত। এখন দেখার পালা এর পরিপেক্ষিতে পাকিস্তানের কি প্রতিক্রিয়া আশে, কি করে ইমরান খান।

আরও পড়ুনঃ আগস্টেই ভারতের বাজারে আসতে পারে করোনার ওষুধ

পাকিস্তানের বায়ুসেনায় যোগ দিলেন প্রথম হিন্দু যুবক

pakistan first hindu airforce

ইসলামাবাদঃ পাকিস্তানের ইতিহাসে এই প্রথম, কোনো হিন্দু যুবক সে দেশের বায়ুসেনায় যোগ দেওয়ার সুযোগ পেলেন। আর সেই খবর পাকিস্তানের বায়ুসেনা টুইট করে জানিয়েছে, এক রাহুল দেব নামে হিন্দু নাগরিক জেনারেল ডিউটি পাইলট অফিসার পদে যোগ দিয়েছে।

রাহুল দেব পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের থারপার্কার জেলার এক গ্রামের বাসিন্দা। বয়স কুড়ির মধ্যে। এই ঘটনাটি পাকিস্তানের সরকারি রেডিও স্টেশনের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে। পাকিস্তানের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো হিন্দু ছেলে বাযুসেনায় কাজ করার সুযোগ পেলেন। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই ভাইরাল হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ দেশে হাজির আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার! করোনার মধ্যেই নতুন বিপদ