দুর্গাপুজোর মণ্ডপ নিয়ে এক নতুন প্রস্তাব মুখ্যমন্ত্রীর

Chief Minister

কলকাতাঃ করোনা আবহে দুর্গাপুজোর প্যান্ডেল হোক খোলামেলা। এমনটাই প্রস্তাব মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবারে নবান্নের সাংবাদিক বৈঠক থেকে বলেন মুখ্যমন্ত্রী, ‘রাজ্য সরকার গঠিত গ্লোবাল পরামর্শদাতা কমিটির সদস্যরা পুজো মণ্ডপ নিয়ে ভালো পরামর্শ দিয়েছে একটা। আমরাও প্রস্তাব এটা। দুর্গাপুজোর মণ্ডপে যাতে এবারে যথেষ্ট হাওয়া বাতাস ঢোকে সেই ব্যাবস্থা রাখতে হবে, গোটা মণ্ডপটা যাতে বদ্ধ না লাগে। মানুষের নিঃশ্বাস প্রশ্বাস নিতে অসুবিধা না হয় যাতে। মণ্ডপে হাওয়া বাতাস ঢুকলে জীবাণু থাকলে তা বেরিয়ে যাবে।

আরও পড়ুনঃ চিন নিয়ে এলো নতুন এক পদ্ধতির করোনা টিকা

এবারের পুজো পরিকল্পনা নিয়ে পুজো কমিটিগুলির সঙ্গে ২৫ সেপ্টেম্বর বসতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী ও পুলিশ প্রশাসন। পুজো প্যান্ডেল তৈরীর ক্ষেত্রে বিশেষ কিছু নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন যে, বিশেষজ্ঞদের মতে খোলা প্যান্ডেলের বদলে ঢাকা মণ্ডপে ভেন্টিলেশনের ব্যবস্থা রাখলে তা অতটা কার্যকরী হবে না। খোলা হাওয়া বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা রাখা ভালো প্যান্ডেলে। কিন্তু তিনি এও বলেন গোটা প্যান্ডেল ঢাকা থাকবে এমনটা নয়। তিনি বলেন, ‘যেখানে দুর্গা প্রতিমা থাকবে সেই জায়গাটা খোলা রাখতে হবে। কিন্তু যেখানে দারিয়ে মানুষ অঞ্জলি দেবেন ও ঠাকুর দেখবেন সেই জায়গাটা খোলা রাখতে হবে।

আরও পড়ুনঃ করোনা অতিমারীর শেষ কবে, জানালো হু

জেনে নিন কী পরিবর্তন আসতে চলেছে মেট্রো পরিষেবায়!

kolkata Metro

আনলক ৪-এ মেট্রো চালুর ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্র। এই নিয়েই এদিন নবান্নে সরকারের সঙ্গে বৈঠক করে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। নবান্ন সূত্রের খবর, ১৪ কিংবা ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে কলকাতায় মেট্রো পরিষেবা চালু করার সম্মত দুই পক্ষেরই। মেট্রো সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলতে পারে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কোভিড গাইডলাইনে, মেট্রো চালু ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ছাড় দেওয়া হলেও, এই নিয়ে তাড়াহুড়ো করতে চাইছেনা মেট্রো ও রাজ্য। তাই মেট্রোতে যাতায়াত করার জন্য ১৪ কিংবা ১৫ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। পরিষেবা চালু হলে সামাজিক দূরত্ব মানার জন্য কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। নবান্ন সূত্রে খবর, যে মেট্রো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, একটি রেকে সর্বোচ্চ ৪৫০ জন যাত্রী থাকলে দূরত্ব বজায় থাকবে।

আরও পড়ুনঃ ১ নভেম্বরেই কি আমেরিকার বাজারে আসছে করোনা ভ্যাকসিন! জেনে নিন

রেক-এর সংখ্যা হল ১০০ বা তারও কম। রেক পিছু সাড়ে চারশো যাত্রীকে পরিষেবা দেওয়ার ভাবনা আছে মেট্রোর। কিন্তু, দমদম থেকে কবি সুভাষ পর্যন্ত রেকে মাত্র ৪৫০ জনই থাকবে, এটা নিশ্চিত কিভাবে করা যাবে! মেট্রোর তথ্যই বলছে যে, নোয়াপাড়া থেকে নিউ গড়িয়, এক একটি রেকে ৮টা কামরা থাকে। যাত্রীদের বসার আসন ৩৮৪টি। করোনার জেরে সেই সংখ্যা কমিয়ে করা হয়েছে ১২৮টি। কিছু লোক দাঁড়াতে পারবেন।

ক্রাউড ম্যানেজমেন্টের ব্যাপারে রাজ্য পুলিশের সহায়তা চেয়েছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। তাতে রাজ্য সরকার সম্মতিও দিয়েছে। যাঁদের এখন স্মার্টকার্ড আছে, শুধু তারাই উঠতে পারবেন মেট্রোতে। টোকেন দেওয়া হবেনা। নতুন করে স্মার্টকার্ড দেওয়া হবেনা। এই সময় মেট্রো কর্তৃপক্ষ একটি অ্যাপ তৈরীর কথা ভাবছেন, যা দিয়ে যাত্রীরা জানতে পারবেন কোন মেট্রো রেকে কতজন আছেন। কোন স্টেশনে কতজন অপেক্ষা করছে। প্ল্যাটফর্মে পাশাপাশি কতজন দাঁড়াবে। সেটাও নির্দিষ্ট করার চেষ্টা হচ্ছে। এখন আপাতত সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেট্রো চলবে। অফিস টাইমে দুটি মেট্রোর মধ্যে ফারাক থাকবে ১২ মিনিট। অন্য সময় ১৫ মিনিট।

আরও পড়ুনঃ রাজ্যে ফের শিক্ষক নিয়োগ হতে চলেছে, শীঘ্রই টেটের বিজ্ঞপ্তি

মৃত্যু হওয়ার ২ দিন পরেও ভেন্টিলেটরে করোনা আক্রান্তের দেহ!

Nursing Home

কলকাতাঃ করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর ২ দিন পরেও ভেন্টিলেটরে দেহ রেখে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। করোনা রিপোর্ট পজিটিভ কিনা, তা নিয়েও প্রশ্ন মৃতের পরিবারে। মৃতের পরিবার কড়েয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। মৃত্যুর সময় জানতে মৃতদেহের ময়নাতদন্তের নজরবিহীন সিদ্ধান্ত। অভিযোগ পার্ক সার্কাসের এক নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুনঃ Unlock4-এ নতুন নির্দেশ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের

যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করে নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের। যাঁর মৃত্যুকে ঘিরে এই অভিযোগ উঠেছে, তাঁর নাম সবর আলি, বাড়ি হুগলীর চণ্ডীতলায়। গত ২৫ অগাস্ট শ্বাসকষ্টের কারণে তাঁকে ভর্তি করে পার্ক সার্কাসের স্বস্তিক সেবা সদন নার্সিংহোমে। ভর্তির দিন থেকেই তাঁকে ভেন্টিলেটরে রাখা হয়।

আরও পড়ুনঃ দায়িত্বহীন ব্যক্তিরা ভারতে COVID-19 মহামারী বাড়াচ্ছে দাবী ICMR-এর

গতকাল গভীর রাতে আগুন বড়বাজারে

fire

কলকাতাঃ বড়বাজারের বহুতলে আগুন। গতকাল রাত আড়াইটে নাগাদ ৫৩, নেতাজি সুভাষ রোডের চারতলা বাড়ির একতলায় আগুন লাগে।এই বাড়িটি ৭০ বছরের পুরানো একটি বাড়ি। এই বাড়িটিতে দোকান ও অফিস রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এল শিব লিঙ্গ, মহাদেবের দর্শনে নেমেছে মানুষের ঢল

আগুন লাগে একতলায়, দোতলায় আগুন খুব তাড়াতাড়ি ছড়িয়ে পড়ে। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান যে মিটার বক্স থেকে আগুন ছড়ায়। দমকলের চারটি ইঞ্জিনের ঘন্টা তিনেক ধরে চেষ্টা করায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে কিন্তু এখনও ধোঁয়া বের হচ্ছে। বেশ কয়েকটি দোকান ও অফিস ভস্মীভূত হয়ে যায়। ঘটনাস্থলে রয়েছে হেয়ার স্ট্রিট থানার পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ ট্রেন ও মেট্রো পরিষেবা চালু করতে চিঠি পাঠালো রাজ্য

কলকাতা থেকে ৬টি শহরে চালু আংশিক উড়ান পরিষেবা, জানুন বিস্তারিত

flights

কলকাতাঃ দেশের ছয় শহর থেকে বিমান আনাগোনায় নিষেধাজ্ঞা আংশিক শিথিল হল। সূত্রের খবর, ওই ছ’টি শহর থেকে বিমান আসায় এখনও আপত্তি আছে রাজ্য সরকারের। আজ থেকে এই পরিষেবা চালু হয়েছে কলকাতা বিমানবন্দরে।

করোনা সংক্রমণ রুখতে দেশের ছ’টি শহর থেকে বিমান ওঠা-নামায় আপত্তি জানায় রাজ্য সরকার। এই শহরগুলি হল, দিল্লি, মুম্বই, পুণে, চেন্নাই, নাগপুর ও আমেদাবাদ। এইসব শহর থেকে বিনাম যাতে না আসে, সেই অনুরোধ জানিয়ে জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে কেন্দ্রীয় সরকারকে চিঠি দেন রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা। ওই সব শহর থেকে করোনা সংক্রামিত যাত্রী এলে কলকাতার করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে একথা ভেবেই এই আর্জি জানায় রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুনঃ টিকটক ইন্ডিয়ার শেয়ার কিনতে পারে রিলায়েন্স, জানুন বিস্তারিত

এর আগে বিদেশ থেকে বিমানে কলকাতা আসার ব্যাপারে আংশিক অনুমতি দিয়েছে রাজ্য সরকার। আংশিক অনুমতি বলতে, উড়ানে কলকাতা ফেরার অনুমতি দিল না রাজ্য সরকার। ওই ছ’টি শহর থেকে বিমান আসবে না, শুধুমাত্র যাবে। শুধুমাত্র চার্টার্ড ফ্লাইটে বিদেশ থেকে ফেরার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে অনুমতি দিলেও সব ফ্লাইট যে কলকাতায় নামতে পারবে এমন কোনো কথা নেই। এক্ষেত্রে ‘কেস টু কেস’ অনুমোদন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। প্রতিটি চার্টার্ড ফ্লাইট আসার আগে, ওই ফ্লাইটের বিস্তারিত জানাতে হবে রাজ্য সরকারকে। তার ভিত্তিতেই অনুমোদন দেবে সরকার।

আরও পড়ুনঃ আগে ছিল বাঘ, এখন বেড়াল, করোনা সম্পর্কে কি বলছেন বিশেষজ্ঞরা

এবার BDO, SDO-দের কাজের মুল্যায়ন করবেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী

in which zone in your house

কলকাতাঃ আমফানে ক্ষতিগ্রস্থ জেলাগুলির বিভিন্ন জায়গা থেকে ত্রাণ বিলি নিয়ে দুর্নীতির বিভিন্ন অভিযোগ এসেছে নবান্নে। আমফানের ত্রাণ বিলি নিয়ে ক্ষুদ্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই এবার তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, জেলা প্রশাসনের সব স্তরের কর্তা বিডিও, এসডিও ও এডিএম-দের কাজের বার্ষিক মুল্যায়ন তিনি নিজেই করবেন।

আমফানের ক্ষতিগ্রস্থ জেলাগুলিতে ত্রাণ বিলির সময় বেশ কিছু বিডিও, এসডিও-র বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। আমফানে ক্ষতিপূরণের জন্য নতুন করে আবেদনপত্র জমা দিতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী। নতুন আবেদনপত্র জমা পড়েছে প্রায় ৬ লক্ষ।

আরও পড়ুনঃ ‘স্বচ্ছ কর ব্যবস্থা’ কর ব্যবস্থার সংস্কারে বড় ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

নবান্ন সুত্রে খবর যে, বেশ কয়েকটি জেলার বিডিও, এসডিও ও এডিএম-দের কাজে অত্যন্ত বিরক্ত নবান্ন। স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সেইজন্য এবার তিনি নিজেই বিডিও, এসডিও-দের কাজের তদারকি করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর নজরদারিতে থাকবেন ৩৪৪ জন বিডিও, ৬৬ জন এসডিও ও ৬৯ জন এডিএম। তিনি নিজে এদের কাজ মনিটরিং করবেন। নবান্নে আসবে প্রতিদিনের কাজের রিপোর্ট। এরপর কাজের মুল্যায়ন করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুনঃ শ্রীদেবীর মৃত্যুর ২ বছর পর সিবিআই তদন্তের দাবি নেটবাসীদের

ছয় লেনের নতুন উড়ালপুল শহরে

new flyover

কলকাতাঃ শহরে নতুন ফ্লাইওভার। ইএমবাইপাসের উপরে হতে চলেছে অন্যতম বড় ফ্লাইওভার। এর পরিধি ভিআইপি বাজার থেকে মেট্রো ক্যাশ অ্যান্ড ক্যারি পর্যন্ত। বাইপাসের দুই প্রান্ত জুড়ে তিন তিন ছয় লেনের হতে চলেছে এই ফ্লাইওভার। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় বিশেষজ্ঞ সংস্থা RITES এই ফ্লাইওভারের বিষয়ে ড্রাফট পরীক্ষা করে পাঠিয়ে দিয়েছে কেএমডিএ-এর কাছে।

এই শহরের গতি বাড়াতে একাধিক উড়ালপুলের প্রস্তাব করেছে রাজ্য নগরায়ন দফতর। এর মধ্যে অন্যতম হল বাইপাসের এই উড়ালপুল। প্রতিদিন ভিআইপি বাজার থেকে অভিষিক্তা মোড় পর্যন্ত প্রচুর যানজট হয় অফিস টাইমে। এই যানজট মেটানোর জন্য প্রয়োজন ছিল একটি উড়ালপুলের।

আরও পড়ুনঃ রামমন্দির তৈরী হবে ৪২ মাসের মধ্যেই, জানেন মন্দির তৈরীতে কত টাকা খরচ হবে!

বাইপাসের দু’প্রান্ত ধরে এই উড়ালপুল বানানো হবে। দুটি প্রান্তই হতে চলেছে তিন লেন করে। এর ফলে যে সংখ্যাক গাড়ি চলাচল করে বাইপাসে তার যাতায়াতের কোনো অসুবিধা হবে না বলেই জানাচ্ছে কেএমডিএ। উড়ালপুল তৈরী করতে খরচ হবে প্রায় ৫০০ কোটি টাকা। এই কাজ তিন বছরের মধ্যেই শেষ হবে। তবে উড়ালপুলের কাজ কবে থেকে শুরু হবে তা এখনও নিশ্চিত করেনি রাজ্য।

আরও পড়ুনঃ পেঁয়াজের সাথে হাজির আর এক বিপদ! হুহু করে ছড়াচ্ছে নতুন এই সংক্রমন

দু’দিন প্রবল বৃষ্টি উত্তরবঙ্গে! বৃষ্টির পূর্বাভাস কলকাতাতেও

heavy rain is coming next week

আজ ও প্রবল বৃষ্টির সতর্কতা উত্তরবঙ্গে। আলিপুরদুয়ারে ব্যাপক বৃষ্টির পূর্বাভাস। পাহাড়ি এলাকায় বৃষ্টির জেরে ধস ও নীচু এলাকা প্লাবিত হওয়ার সম্ভাবনা। আগামী ২৪ ঘন্টা উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা। দক্ষিণবঙ্গেও বজ্রবিদ্যুৎ সহ বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে।

সক্রিয় মৌসুমি অক্ষরেখা ও ঘুর্ণাবর্তের প্রভাবে উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টি হবে। অসম, মেঘালয়েও ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। ২৪ ঘন্টা পর মৌসুমি অক্ষরেখা দক্ষিণের দিকে সরবে। উত্তরবঙ্গে বৃষ্টি কমবে শনিবার থেকে।

আরও পড়ুনঃ শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে অবশ্যই খান খেজুর

আজ সকালে কলকাতায় আংশিক মেঘলা আকাশ। বজ্রবিদ্যুত সহ হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা। আজ সকাল থেকেই আদ্রতাজনিত অস্বস্তি ভোগাবে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে।

আরও পড়ুনঃ অগাস্ট মাস জুড়ে চলবে লকডাউন, জানালো মুখ্যমন্ত্রী

করোনার জেরে সপ্তাহে দু’দিন রাজ্যে পুরোপুরি লকডাউন

কলকাতাঃ করোনা রুখতে শুরু হচ্ছে সপ্তাহে দু’দিন লকডাউন রাজ্যে। এটি ঘোষণা করেছেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। চলতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার ও শনিবার সম্পুর্ণ লকডাউন থাকবে রাজ্যে। জরুরি পরিষেবা ছাড়া অফিস-কাছারি, পরিবহণ সমস্তই বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

আগামী সপ্তাহে বুধবার থাকবে লকডাউন। স্বরাষ্ট্রসচিব জানিয়েছেন যে, এ দিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করে রাজ্য প্রশাসন। সেখানে বিজ্ঞানী ও বিশেষজ্ঞদের মত থেকে মনে করা হচ্ছে যে, রাজ্যের কয়েকটি জায়গায় শুরু হয়েছে গোষ্ঠী সংক্রমণ। এ কারণেই সংক্রমণ রুখতে এই সিদ্ধান্ত রাজ্যের।

আরও পড়ুনঃ কোভ্যাক্সিন-এর হিউম্যান ট্রায়াল শুরু, কোথায় হচ্ছে এই ট্রায়াল!

স্বরাষ্ট্রসচিব জানিয়েছেন, প্রত্যেক সপ্তাহের সোমবার পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে রাজ্য প্রশাসন বৈঠকে বসবে। সেদিন জানানো হবে সপ্তাহের কোন দু’দিন লকডাউন করা হবে।

আরও পড়ুনঃ সোনার মাস্ক পরলেন কটকের এক ব্যবসায়ী, ভাইরাল সেই ছবি

১ আগস্ট থেকে ট্যাক্সিতে উঠলেই ভাড়া ৫০ টাকা

Taxi

কলকাতাঃ পয়লা আগস্ট থেকে ট্যাক্সিতে উঠলেই ৫০ টাকা। ৩০ টাকা থেকে লাফিয়ে ২০ টাকা বৃদ্ধি ভাড়া। কলকাতার ৩টি ট্যাক্সি ইউনিয়নের ঘোষণা। সরকার ভাড়া বাড়ানোর অনুরোধে কর্ণপাত করেনি। তাই বাধ্য হয়ে এই সিদ্ধান্ত।

দাবি বেঙ্গল ট্যাক্সি ইউনিয়নের। ভাড়া বৃদ্ধি মানা না হলে ট্যাক্সি চালানো সম্ভব হবেনা বলে দাবি ইউনিয়নের।

আরও পড়ুনঃ JIO ভারতকে 2G মুক্ত করবে, ঘোষণা করলো মুকেশ আম্বানি

যদিও এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে চাননি পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। তিনি কোনোও মন্তব্য করতে চাননি। উল্লেখ্য, বাসের ভাড়া বৃদ্ধির দাবি উঠছে। আলোচনা চলছে বিষয়টি নিয়ে।

আরও পড়ুনঃ GOOGLE এর বড় ঘোষণা! ভারতে ৭৫ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ, জানালেন পিচাই