complain sushant's father

রিয়া সুশান্তকে ড্রাগ ও ওভারডোজ দিয়েছিলেন, অভিযোগ সুশান্তের বাবার

সুশান্তের বাবা রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন, তাঁর মৃত্যুর জন্য রিয়াকে দায়ী করেন তিনি। এর সঙ্গে রিয়ার ভাই ও তাঁর পরিবারের নামও উল্লেখ রয়েছে। তাঁর অভিযোগ রিয়া ও তাঁর পরিবার সুশান্তের টাকা লুঠ করছিল।

রিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি সুশান্তকে পাগল ঘোষণা করানোর জন্যু উঠে পড়ে লেগেছিলেন। সুশান্তের বাবা জানান, তিনি বৃদ্ধ তাই বেশি দৌড়াদৌড়ি করতে পারবেন না তাই তিনি পাটনাতেই এফআইআর দায়ের করেছেন। তাঁর অভিযোগ আগে যে বাড়িটায় বাস করতেন সুশান্ত সেখানে ভুতপ্রেত আছে বলে সেই বাড়ি ছাড়তে বাধ্য করেন রিয়া সুশান্তকে। তারপর বান্দ্রা-এর বাড়িটা ভাড়া নেন তাঁর শেষ গার্লফ্রেন্ড। তিনি সেখানে নিজের পরিবারের লোকদের নিয়ে তাঁর সঙ্গে থাকতেন।

সুশান্তের বাবার অভিযোগ, তাঁর ছেলেকে পাগল করিয়ে অ্যাসাইলামে পাঠানোর তোড়জোড় শুরু করেছিলেন রিয়া। এর জন্য তাঁকে মানসিক অসুস্থতার ওষুধ খাওয়াতে শুরু করেছিলেন রিয়া। প্রথমে তাঁকে ডেঙ্গির ওষুধ বলে মানসিক অসুস্থতার ওষুধ খাওয়াতে শুরু করেছিলেন। তারপর ড্রাগ ও ওভারডোজের জেরে মানসিক স্থিতাবস্থা হারিয়ে ফেলছিলেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ মানসিক অবসাদ বা বাড়তি ওজোন, সবকিছু থেকে মুক্তি পেতে খান আমলকী

রিয়া সুশান্তের মোবাইল নম্বর অবধি বদলে দিয়েছিলেন। যাতে সুশান্ত নিজের পরিবারের কাছ থেকে দূরে থাকেন। সুশান্তের অ্যাকাউন্টের কোটি কোটি টাকা রিয়া ও তাঁর পরিবার গায়েব করে দেন। কোনও ফিল্মের অফার এলে তাঁর নায়িকা রিয়াকেই করতে হবে, এইরকম করতে হবে বলে উস্কাতেন তিনি সুশান্তকে।

সুশান্ত বন্ধু মহেশ শেট্টির সঙ্গে ফার্মিং শুরু করবে বলে ভাবনা চিন্তা করছিলেন তখন রিয়া চরম পদক্ষেপ নেন। সুশান্তের ক্রেডিট কার্ড, বাড়ির কাগজ সব নিয়ে বাড়ি চলে যান। বেরিয়ে যাবার পর সুশান্তের নম্বর ব্লক করেছিলেন তিনি। তিনি হুমকি দিয়েছিলেন সুশান্তকে যদি কোনো বাড়াবাড়ি করেন তবে তাঁর মেডিক্যাল সবকিছু সংবাদমাধ্যমের কাছে ফাঁস করে দেবেন তিনি। আত্মহত্যার আগে খুব অস্বস্তিতে ছিলেন সুশান্ত।

আরও পড়ুনঃ পেঁপে খেয়ে কীভাবে ওজোন কমাবেন জানুন

Leave a Reply