১০০ বছর অন্তর আসে মহামারি, এ এক অলৌকিক ঘটনা

২০২০ সাল পড়তেই সমগ্র বিশ্বের সামনে উপস্থিত এক ভয়াবহ মহামারী, করোনা ভাইরাস। যার সূত্রপাত হয় ২০১৯ এর শেষ মাসে চিনের হুয়ান প্রদেশে। কিন্তু অদ্ভুত ব্যাপারটা হল, ১০০ বছরের অন্তরে ফিরে আসা মহামারীর ইতিহাস।

ইতিহাস ঘটলে দেখা যায় ঠিক ১০০ বছর অন্তর অন্তর ঘটেছে মহামারী, প্রান নিয়েছে কোটি কোটি মানুষের।

১৭২০ সালে ইউরোপে ছড়িয়ে পড়েছিল বিউবনিক প্লেগ। এই রোগের সূত্রপাত ঘটেছিল মার্সেইল। সেইখান থেকে শুরু হয়ে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে এই রোগ। এই মহামারীর নাম দেওয়া হয়েছিল ‘গ্রেট প্লেগ অফ মার্সেইল’। পরবর্তীতে এর আরও একটি নাম দেওয়া হয়েছিল যা ছিল, ‘ব্ল্যাক ডেথ’। এটি ছিল একটি ছোঁয়াচে রোগ।

১৮২০ সালে, ঠিক ১০০ বছরপর আবার এক মহামারীর দেখা মেলে যার নাম ‘কলেরা’। এই রোগে গোটা বিশ্বে মৃত্যু হয় ৪ কোটি মানুষের, এই রোগ ভারত পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়েছিল সেই সময়।

এরপর সালটা ছিল ১৯২০। অদ্ভুতভাবে ঠিক ১০০ বছরপর আবার দেখা দিল এক অন্য রোগ, অন্য মহামারী যাকে স্পানিস ফ্লু বলা হত। এই মহামারী দু’বছর ধরে চলতে থাকে এই মরণ রোগ। ফলে সেই সময় ৫ কোটি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। দেখা গিয়েছিল এই ফ্লু তে মৃতের সংখ্যা বেশি ছিল ৪০ বছরের উর্ধ বয়সী মানুষের। এত টাই বীভৎস রুপ ধারণ করেছিল যে মৃতদেহ ট্রাকে বোঝাই করে নিয়ে একসাথে সৎকার করতে হয়েছিল।

নকশা অনুযায়ী পরবর্তী মহামারী টা হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালে। আর সেটাই হলো শেষ মেশ। চিন থেকে শুরু হওয়া করোনা ভাইরাস এমন পৌঁছে গেছে সমগ্র বিশ্বে, কম বেশি ভাবে প্রতিটি দেশে আক্রাতের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। চিন এই ভাইরাসের হাত থেকে কিছুটা নিজেকে কাটিয়ে ফেলেছে। তবে ইটালি, আমেরিকা, স্পেন, জার্মানি, ইরান, দক্ষিণ কোরিয়ার মতো দেশ গুলি এই রোগের সাথে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে।

কোনো রকম ভ্যাকসিন আবিষ্কার না হওয়ার ফলে এই মহামারীকে থামানো মানুষের কাছে কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

কে বলতে পারে হয়তো আবার ১০০ বছর পর মানুষের কাছে আবার অন্য কোনো ভাইরাস এসে উপস্থিত হবে। যা আবার মহামারীর আকার ধারন করবে। বহু মানুষের প্রান নেবে, মহামারী কোনো শ্রেণী, জাতি, বর্ণ দেখে না, ধনী-গরিব, উচ্চ-নীচ বিচার করেনা। গ্রামের পর গ্রাম, শহর জন মানবহীন করে রেখে চলে যায়।

Leave a Comment