দেশবাসীর জন্য বড় ঘোষনা প্রধানমন্ত্রীর, জানুন বিস্তারিত

ভারতবর্ষ এখন লকডাউনের জন্য গৃহবন্দী। মানুষ নিজের বাড়িতেই বন্দী হয়ে রয়েছে বেশ কিছু দিন ধরে। কিন্তু এরই মাঝে বেশ কিছু জায়গায় অপৃতিকর ঘটনা ঘটে গেছে ইতি মধ্যেই। কোথাও বাসের জন্য হাজার হাজার মানুষ একত্রিত হয়েছে আবার কোথাও লকডাউন কে অমান্য করে বাড়ির বাইরে ঘোরাফেরা করেছে। কোথাও আবার জমায়েত করে হাজার হাজার মানুষ ধর্ম অনুষ্টানে যুক্ত হয়েছে। কিছু জায়গাতে পুলিশ প্রশাসনের সাথে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে মানুষ। এর ফলে দেশের চরম ক্ষতি হয়েছে। দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে লাফিয়ে লাফিয়ে। এক বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সঞ্চার ঘটেছে।

লকডাউনের সময়সীমা আস্তে আস্তে শেষ হয়ে আসছে। তাই এই কঠিন পরিস্থির মোকাবিলা করার জন্য শক্ত হাতে রোধ করতে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজে সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন। লকডাউনের মধ্যে কিভাবে দেশের এই সংকটময় পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে তা নিয়ে আলোচনা করেন। সেই সঙ্গে প্রতিটি রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার পরিকাঠামোকে মজবুত করার কথা বলেন। লকডাউনের শেষ হতেই মানুষ যাতে বেমালুম ভাবে ঘোরাঘুরি না করে সেদিকে নজরদারি চালাতে নির্দেশ দেন তিনি।

তারই সাথে শুক্রবার সকাল ৯ টার সময় জাতির উদ্দেশ্যে তিনি ভাষন দেন। তার ভিতরে ৫ এপ্রিল রাত ৯ টার সময় প্রতিটি দেশবাসী ৯ মিনিটের জন্য নিজ নিজ বাড়িতে সব বাতি বন্ধ করে রাখার কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী। সেই ৯ মিনিট মোমবাতি, প্রদীপ, মোবাইলের ফ্লাস লাইট প্রভৃতি জেলে প্রতিটি দেশবাসী একত্রিতভাবে করোনার বিরুদ্ধে মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত তার প্রমান দেবে।

Leave a Reply