৩ মাস ধরে লাখ লাখ করোনা টিকা তৈরী হবে, জানালো সেরাম ইন্সটিটিউট

নয়াদিল্লিঃ বিশ্বের বৃহত্তম টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থা সেরাম ইন্সটিটিউট অফ ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড করোনা টিকা তৈরী করার জন্য অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে পার্টনারশিপে গেল। এ ছাড়াও তারা দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরী প্রথম নিজস্ব টিকা বানানোর জন্য অনুমতি পেয়েছে ডিজিসিআইয়ের কাছে।

সেরাম ইন্সটিটিউটের সিইও আদার পুনাওয়ালা বলেছেন, প্রত্যেকের জন্য টিকার ব্যবস্থা করতে দেরি আছে এখনও, তার কারন কতগুলি টিকা তৈরী করতে হবে সেটা এখনও ঠিক হইনি। তারপর তা পৌছে দিতে হবে সারা বিশ্বে, আর প্রথম যে টিকাটি লাইসেন্স পাবে, সেই টিকাই যে সবথেকে ভালো হবে এমন কিছু নয়। করোনা টিকা তৈরীর জন্য একাধিক পরীক্ষা চলছে বিশ্ব জুড়ে, সেরা টিকা কোনটা সেটা জানতে হলে অপেক্ষা করতে হবে।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে পার্টনারশিপে যাওয়া ব্রিটিশ ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে হাত মিলিয়েছে সেরাম ইন্সটিটিউট করোনা টিকা তৈরির জন্য। এজন্য তারা শত শত মিলয়ন ডলার খরচ করবে। টিকা তৈরীর লাইসেন্স পেয়ে গেলে সেরাম আগামী ৩ মাসে লাখ লাখ করোনা টিকা তৈরী করবে।

আরও পড়ুনঃ ৩৭৫ জন স্বেচ্ছাসেবীর উপর শুরু হল কোভ্যাক্সিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল

এর পাশাপাশি সেরাম ইন্সটিটিউটের রয়েছে নিজেদের ভিপিএম ১০০২ টিকা। তাদের ধারণা এই যে, টিবি নির্মূলে কার্যকর এই টিকা করোনা যুদ্ধেও গেমচেঞ্জার হতে পারে। এই টিকা ১০০০-এর বেশি রোগীর উপর পরীক্ষা করা হয়েছে। আগামী ২ মাসে জানা যাবে করোনা সংক্রমণ কমাতে এই টিকা কতটা ফলপ্রসূ।

আরও পড়ুনঃ সোনার মাস্ক পরলেন কটকের এক ব্যবসায়ী, ভাইরাল সেই ছবি

Leave a Comment