ত্বক ঝলমলে কিভাবে করবেন, চট করে দেখে নিন

এখন সবাই অনেক ব্য়স্ত, এই ব্যস্ততার মাঝে ঘরে বসে রূপচর্চার জন্য সময় বার করা খুবই কঠিন। যেটুকু হয় সেটা নামমাত্রই। পার্লারে ভিড় করতে হয় তার জন্যই। এর জন্য খরচ তো হয় তার সাথে নানা রকম রাসায়নিক জিনিস এর পাশ্বপ্রতিক্রিয়ায় ক্ষতি হয় ত্বকের।ঘরোয়া উপাদানে বাড়িতে বসেই বানিয়ে ফেলতে পারেন এমন কিছু ফেসপ্যাক, যা সতেজ করে তুলবে ত্বককে ও তার সাথে সাথে ত্বকে জেল্লা আনবে।

ত্বকের পরিচর্জার জন্য আদি কাল থেকে হলুদ ব্যবহার হয়ে আসছে। ত্বকে উজ্জ্বল আনতে ব্রণ ও র‍্যশের সমস্যা দূর করতে হলুদ সব সময়ই উপকার। মসৃণ ও সুন্দর ত্বক পেতে হলে হলুদের ওপর ভরসা রাখতে পারেন। এর জন্য তিনটি উপায় রইল।

ত্বক উজ্জ্বল করার ৩টি সহজ উপায়

১। বেসন, হলুদ ও গোলাপ জলের প্যাকঃ- বেসন ত্বকের তেল শুষে নিয়ে ব্যাকটেরিয়া মুক্ত রাখে ত্বককে। ফলে ত্বকে ব্রণর প্রবণতা হ্রাস পায়। ২ টেবিল চামচ বেসন, ১/৪ চামচ হলুদ গুঁড়ো ও তার সাথে খানিকটা গোলাপ জল মিশিয়ে নিন একসাথে। প্রথমে জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন তারপর এই পেস্টটি ১০-১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে অপেক্ষা করুন। প্যাক টি শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই ফেসপ্যাকটি সপ্তাহে দু বার ব্যবহার করলে ত্বক উজ্জ্বল ও সতেজ হবে।

২। মধু, হলুদ ও দুধের প্যাকঃ- এই ফেসপ্যাক তৈরি করার জন্য এক চামচ মধু, ১/৪ চামচ গলুদ গুঁড়ো তার সাথে দু চামচ কাঁচা দুধ মিশিয়ে নিতে হবে। প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন এরপর প্যাকটি আলতো হাতে মুখের সব জায়গায় লাগিয়ে নিন ও প্যাকটি ১০-১৫ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকে ব্রণর প্রবনতা কমায় ও ত্বককে কোমল করে তোলে। এই ফেসপ্যাকটি ত্বকের বলিরেখা দূর করে।

৩। মধু, হলুদ ও লেবুর রসের প্যাকঃ- ত্বকের ব্রণর দাগ, কালো দাগ লেবুর রস দূর করতে সাহায্য করে। ত্বকের রোমকূপ সংকুচিত হয়। মধু ত্বকে জলের ভারসাম্য বজায় রাখে ও ব্রণ হওয়ার প্রবণতা হ্রাস করে। ১ টেবিল চামচ মধু, ১/৪ চামচ হলুদের গুঁড়ো ও তার সাথে ১ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এই ফেসপ্যাকটি সপ্তাহে এক বার ব্যবহার করুন। এই প্যাকটি নিয়মিত ব্যাবহার করলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি হবে।

Leave a Comment