রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে অবশ্যই এই খাবারগুলি খান

করনার জেরে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো প্রয়োজন। এই কথা বার বার বলছেন চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা। আর সেটা করার জন্য অবশ্যই এমন খাবার খেতে হবে যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

এইরকম খাবারের তালিকা নিচে দেওয়া হলঃ

আমলকিঃ সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, আমলকি রক্তের তারল্য বাড়াতে সাহায্য করে। এর পাশাপাশি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হিসাবেও কাজ করে এই আমলকি।

কমলালেবুঃ শর্করার পরিমাণ অনেক কম কমলালেবুতে। অনেক স্বাস্থ্যগুণ রয়েছে কমলালেবুতে। এতে ভিটামিন-সি ছাড়াও রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার। এতে আছে থিয়ামিন, ফোলেট ও পটাশিয়াম, যা শরীরের উপকারী হিসাবে কাজ করে।

ক্যাপসিকামঃ ক্যাপসিকামে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি ও অন্যান্য অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের পাশাপাশি ক্যাপসিকামে ভিটামিন-ই, ভিটামিন-এ ফাইবার আছে। এছাড়াও এতে আছে ফোলেট ও পটাশিয়াম। ক্যাপসিকাম অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের কারণে দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। ক্যাপসিকাম অ্যানিমিয়া রোধ করে।

পেয়ারাঃ পেয়ারা পটাশিয়াম ও ফাইবারে ভরপুর। গবেষণায় উঠে এসেছে, পেয়ারা রক্তের শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে। সুস্থ্য রাখে হৃদযন্ত্রকে। এর পাশাপাশি পেয়ারা মহিলাদের ক্ষেত্রে ঋতু সমস্যায় উপকারী।

আরও পড়ুনঃ মানসিক অবসাদ বা বাড়তি ওজোন, সবকিছু থেকে মুক্তি পেতে খান আমলকী

পেঁপেঃ কমলালেবুর মত পেঁপেতেও রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার। ক্যালোরির মাত্রা কম। পেঁপে শরীরের মধ্যে থেকে বিষাক্ত পদার্থ সরিয়ে দিতে সাহায্য করে। এতে অন্ত্রের প্রক্রিয়া মসৃণ করে। এর সঙ্গে হজমের সমস্যা ও পেটের ভারীভাব দূর করে।

পাতিলেবুঃ লেবু ওজোন কমাতে সাহায্য করে। এর পাশাপাশি হৃদযন্ত্র ও হজমের প্রক্রিয়া সঠিক রাখতে সাহায্য করে। এর সাইট্রিক অ্যাসিড প্রস্রাবের পরিমাণ বৃদ্ধি করে। এর ফলে কিডনি স্টোন রোধে সাহায্য করে লেবু। এছাড়াও পাতিলেবু শরীরের অম্ল ও ক্ষারের ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে।

আরও পড়ুনঃ ওজন কমানোর সহজ পথের নাম গাজর

Leave a Comment