দিদি করোনাকে হারিয়ে বাড়ি ফেরার পর রাস্তার মধ্যে তুমুল নাচ বোনের

dance

করোনাকে হারিয়ে কেউ যখন বাড়ি ফেরে তখন সেই রোগীর বাড়ির লোক ও প্রতিবেশীরা হাততালি দিয়ে স্বাগত জানায় তাকে। এই রকম একটি পরিবারের করোনাকে হারিয়ে দিদি বাড়ি ফেরার পর তার বোনের বাড়ির সামনে গান চালিয়ে তুমুল নাচ। এই ভিডিওটি অনেকেরই মন কেড়েছে।

এই ঘটনাটি ঘটেছে পুনের ধনবডি এলাকায়। এই পরিবারে ২০ দিন আগে করোনার লক্ষণ দেখা দিয়েছিল। পরিবারের ছোট মেয়ে সালোনিকে বাদ দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন সবাই।

আরও পড়ুনঃ জঙ্গলে মুখোমুখি হল বাঘ ও পাইথন, দেখুন তারপর কী ঘটলো

দু’দিন আগে সালোনির দিদি করোনাকে হারিয়ে বাড়ি ফেরে তখন সালোনি খুশিতে গান বাজিয়ে নাচ শুরু করে দেয়। তাঁর দিদিও সালোনির নাচ দেখে আনন্দে নাচ শুরু করে দেয়।

আরও পড়ুনঃ বাড়ির বাইরে থাকলে স্যানিটাইজার কিভাবে ব্যবহার করবেন! জেনে নিন

বিদ্যুতের বিল দেখে হতবাক! জানুন বিল সাশ্রয়ের উপায়

Shocked to see the electricity bill

করোনা ভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে বিদ্যুতের বিল দেখে মাথায় হাত অনেকেরই। এদিকে প্রচন্ড গরমে এসি তো চালাতেই হবে! কী করে হবে সাশ্রয়! বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে উপায় আছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে এসি নিয়ন্ত্রণেই বিদ্যুৎ খরচ থাকবে নাগালের মধ্যে। অনেকেই ঝোঁকেন ফাইভ স্টার এসি কেনার দিকে। কিন্তু সেটা সবসময় দরকার পড়েনা। এসি বছরে যদি গড়ে ১০০০ ঘন্টার কম চলে এবং বিদ্যুতের ইউনিট পিছু যদি খরচ হয় ৫ টাকা, তবে ৩ স্টার স্প্লিট এসি কিনলেই চলবে।

বিদ্যুতের বিল বাঁচাতে অবশ্যই এসির টেম্পারেচর ২৪ থেকে ২৬ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের মধ্যে থাকতে হবে। এসি যত কম তাপমাত্রায় চালানো হবে ততই বিদ্যুৎ খরচ বাড়বে।

আরও পড়ুনঃ মেদ নিয়ে সমস্যায় ভুগছেন, সমাধান আপনার হাতের মুঠোয়

রাতে স্লিপ মোডে এসি চালিয়ে ভোরে বন্ধ করে দিতে হবে, এতে বিদ্যুৎ খরচ কমবে। সিলিং ফ্যানটিও সামঞ্জস্য রেখে চালান।

নির্দিষ্ট সময় অন্তর এসির ফিল্টার পরিষ্কার করতে হবে। ঘর ঠান্ডা হয়ে গেলে যাতে আপনা থেকেই বন্ধ হয়ে যায় এসি, এর জন্য টাইমার ব্যবহার করুন। দিনের বেলায় ঘরে তাপ ঢোকার উৎসগুলিকে বন্ধ করুন।

আরও পড়ুনঃ বাড়িতে বসে কিভাবে তৈরি করবেন ফ্রায়েড মোমো

এবার ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্য কর্মীদের ধন্যবাদ জানাল টেক দানব গুগল

google say thank you for doctors, nurses and medical stuff

দেশে করোনা মহামারী থেকে মানুষের রক্ষাকবজ হয়েছে ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীগন। তাদের উদ্দেশ্যে প্রথমবার ভারতবাসী শ্রদ্ধা জানিয়ে ছিল ২২ মার্চ ঠিক বিকাল ৫ টার সময়। সেই সময় ভারতের মানুষ থালা, ঘন্টা, ও করতালি দিয়ে শব্দ করে ছিল। সেই চিত্র পরর্বতী সময়ে অন্যান্ন দেশেও দেখতে পাওয়া গিয়েছিল।

তার পর সমগ্র দেশে ২৪ মার্চ থেকে লকডাউন ঘোষনা করা হয়। আবার মানুষকে একত্রিত হওয়ার ডাক দিয়ে ৫ এপ্রিল রাত ৯ টার সময় মানুষকে প্রদীপ বা মোবাইলের ফ্লাস লাইট জেলে ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্য কর্মীদের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা প্রদান করা হয়। ভারতবাসী আবিলম্বে তা করে।

এবার গুগলের পক্ষথেকে সেই রকমই করা হল। তবে একটু অন্য রকম, অন্য ভাবে। ১২ এপ্রিল টিক রাত ১২ টার ঘরে কাটা আসতেই গুগলের প্রথম পেজেই তা দৃশ্যমান হয়ে ওঠে। আর এই পরিবর্তনটি দেখা যাবে ১৩ এপ্রিল সারা দিন ধরে। গুগলের অনুসন্ধানের জায়গার নিচেই আছে একটা লিঙ্ক। সেই লিঙ্কে গেলেই দেখা যাবে একটা ১ মিনিটের ভিডিও। সেই ভিডিওতে দেখা গেছে সাধারন মানুষ সমস্ত স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের মনোবল বাড়িয়ে দিচ্ছে হাততালি, প্রদীপ, থালা বাজিয়ে। দেখেনিন সেই ভিডিওটি।

বাড়িতে বসেই কীভাবে মাস্ক বানাবেন, দেখে নিন

করোনা ভাইরাস কে ঠেকাতে বাড়িতে থাকতে হবে। এইটাই একমাত্র পথ তা সত্ত্বেও কিছু কিনতে বা জরুরি কাজে বেরতে হচ্ছে বাইরে মাঝেমধ্যেই। বিশ্ব সংস্থা বলেছে বেরলে মাস্ক অবশ্যই ব্যবহার করুন। কন্তু মাস্ক আর পাওয়া যাচ্ছে কই? ভারতে এখন মাস্কের অভাব বাজারে ও ই-কমার্স সাইটগুলোতেও মাস্ক নেই তাহলে উপায় কি?

এমনকি কোথাও কোথাও মস্ক বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, এই পরিস্থিতিতে N95 মাস্ক অত্যন্ত জরুরি। এই সময়ে বাড়িতেই বানিয়ে নিন মাস্ক। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাস্ক বাড়িতে ঠিকমত বানাতে পারলে তা কাজ দেবে। N95 মাস্কের এই আকালে বাড়িতে বসেই বানিয়ে ফেলতে পারবেন এমন মাস্ক, যা ভাইরাসের হাত থেকে অনেকটাই রক্ষা করবে।

কিভাবে মাস্ক বানাবেন দেখে নিন, দুটি কাপড় নিন ও একসাথে সেলাই করুন তারপর একটি সাইড ভাঁজ করুন। উপরে ইলাস্টিক রাবার ব্যান্ড লাগান এরপর তা সেলাই করুন, অন্য সাইডে একি ভাবে সেলাই করুন। চাইলে কাপড়ের মাঝে অল্প তুলো দিয়ে সেলাই করতে পারেন তাহলে আরও ভালো হবে।