মারা গেলেন ‘ব্ল্যাক প্যান্থার’ চাডউইক বোসম্যান

Chadwick Boseman

মারা গেলেন মার্ভেল সিনেমার ব্ল্যাক প্যান্থার চাডউইক বোসম্যান। মার্ভেল ছবিতে অভিনয় করার আগে ঐতিহাসিক চরিত্র জ্যাকি রবিনসন এবং জেমস ব্রাউনের ভূমিকায় অভিনয় করেন তিনি। এরপর ব্ল্যাক প্যান্থারের চরিত্রে অভিনয় করে রাতারাতি খ্যাতি অর্জন করেন তিনি। সম্রাট টি চালার ভূমিকায় অভিনয়ের সুযোগ পাওয়ায় সম্মানিত বোধ করেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ শ্রীদেবীর মৃত্যুর ২ বছর পর সিবিআই তদন্তের দাবি নেটবাসীদের

চাডউইক গত চার বছর ধরে ক্যান্সারে ভুগছিলেন। তার মৃত্যু হয় মাত্র ৪৩ বছর বয়সে। চাডউইক লস অ্যাঞ্জেলসের বাসভবনে মারা যান। মৃত্যুর সময় তাঁর স্ত্রী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও তাঁর পাশে ছিলেন। পরিবার এক বিবৃতিতে জানান, ৪ বছর আগে তাঁর কোলনে ক্যানসার ধরা পড়ে, তিনি তখন থেকেই অসুস্থ্য ছিলেন।

আরও পড়ুনঃ টাকার অভাবে সুপারকার ড্রাইভার হয়ে উঠলেন নীল ছবির জনপ্রিয় অভিনেত্রী

‘পোস্টারে অন্তর্বাস দেখানো কি জরুরী’, ট্রোলের মুখে স্বস্তিকা

বাংলার সিনেমা জগতের এক জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। তিনি বারবার ট্রোলের মুখে পড়েছেন। সেই ‘দুপুর ঠাকুরপো’ থেকে সম্প্রতি ঘোষণা করা ‘তাসের ঘর’ পর্যন্ত বাড়াবরই তিনি নেট দুনিয়ায় সরব। স্পষ্ট কথায় মানুষের জবাব দিয়ে গেছেন তিনি। এবারও তার ব্যতিক্রম হলনা।

সম্প্রতি তাসের ঘর -এর পোস্টার মুক্তি পেয়েছে বিভিন্ন সোশাল মিডিয়াতে। সেই পোস্টারটি পোস্ট করা মাত্রই নেটবাসীদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। সেই পোস্টারে সাদাকালো রঙে এক বাঙালি গৃহবধূর ফ্রেমে ধরা পড়ে, তবে ছবিতে বেরিয়ে রয়েছে পরনের অন্তর্বাস।

আরও পড়ুনঃ টাকার অভাবে সুপারকার ড্রাইভার হয়ে উঠলেন নীল ছবির জনপ্রিয় অভিনেত্রী

সেই ছবিকে কেন্দ্র করেই সৃষ্টি হয়েছে নেটজগতের সব অলোচনা। আর বার বার প্রশ্ন উঠে আসে, পরিচালক কেন পোস্টারে ব্রা-এর স্ট্র্যাপ দেখালেন? ও আরও বহু প্রশ্ন। আর এই সব দেখেই সাথে সাথে উত্তর দিলেন স্বস্তিকা।

ট্যুইটারে পোস্ট করে স্পষ্ট উত্তর দিলেন স্বস্তিকা।

আরও পড়ুনঃ জারী কমলা সতর্কতা, প্রবল বৃষ্টির সম্ভবনা দফায় দফায়, জেনে নিন আপডেট

টাকার অভাবে সুপারকার ড্রাইভার হয়ে উঠলেন নীল ছবির জনপ্রিয় অভিনেত্রী

Renee Gracie

অস্ট্রেলিয়ার সুপারকার ড্রাইভার ছিলেন রিনি গ্রেসি। তিনি এক সময় নাম লিখিয়ে ছিলেন নীল ছবির জগতে। তারপর থেকেই আস্তে আস্তে মানুষের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। মানুষ জানতে পারে তার জীবনের অনেক অজানা কথা।

তার জীবনের অনেক আজানা কথার মধ্যেই উঠে আসে তার নীল ছবির জগতে পা রাখার গল্প। তাতে তিনি জানিয়েছিলেন, জীবনের এক সময় তিনি খুবই আর্থিক সংকটের মধ্যে দিয়ে তাঁর জীবন অতিবাহিত হচ্ছিল। সেই সময় তার কাছে কোনো আর কোনো রাস্তা ছিলনা আর্থিক সংকট দূর করার। তাই তিনি ঠিক করে ছিলেন নিল ছবির দুনিয়াতে পা রাখবেন।

আরও পড়ুনঃ নীল বিকিনি তে উষ্ণতা ছড়ালেন অভিনেত্রী সাক্ষী, ভাইরাল দৃশ্য

তার ওই পদক্ষেপে আজ বিশ্ব জুড়ে তৈরি হয়েছে ফ্যান। মানুষ তাঁকে নিয়ে আলোচনা করে। কেউ ভাল কথা বলে থাকেন, আবার কেউ কটুউক্তি করে থাকেন। তবে তাতে রিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, যে যাই বলুক না কেন তাতে কিছু আসে যায় না তার। তিনি এও জানান, এই পেশা বেছে নেওয়াতে তার পরিবারের দিক থেকে তাঁকে পূর্ন সমর্থন দিয়েছে। এতে তারা খুশি।

আরও পড়ুনঃ কলকাতা থেকে ৬টি শহরে চালু আংশিক উড়ান পরিষেবা, জানুন বিস্তারিত

শ্রীদেবীর মৃত্যুর ২ বছর পর সিবিআই তদন্তের দাবি নেটবাসীদের

Sredevi's death

২ বছর অতিক্রম হয়ে গেছে শ্রীদেবীর মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু তার মৃত্যু এখনও রহস্যি হয়ে রয়েগিয়েছে। শ্রীদেবীরে মৃত্যু নিয়ে সিবিআই তদন্তের দাবি জানাল নাটবাসীদের একাংশ।

২০১৮ সালে মোহিত মারওয়াড়ের বিয়েতে দুবাই গিয়েছিল শ্রীদেবী ও তার পরিবার। কয়েকদিন সেখানে কাটিয়ে বনি কাপুর তার বোনকে নিয়ে ফিরে আসেন মুম্বাই। শ্রীদেবী থেকে যান দুবাইয়ে। পরে আবার দুবাইয়ে যান বনি কাপুর। সেদিন তিনি নৈশ্যভোজের জন্য শ্রীদেবীকে তৈরি হতে বলে। তারপরই হোটেলের বাথ টাব থেকে উদ্ধার হয় তাঁর দেহ। তাঁকে মৃত বলে জানিয়ে দেয় সেখানের ডাক্তাররা। দুবাই সরকার একে দুর্ঘটনাজনক মৃত্যু আখ্যাদেয়।

নেটবাসীদের একাংশ ও শ্রীদেবীর অনুরাগী-ভক্তদের অনেকে মনে করেন পুরোটাই ধোঁয়াশা এখনও। কীভাবে হোটেলের বাথ টাবে ডুবে মারা গেলেন তিনি! শ্রীদেবীর মৃত্যুর রহস্যের জাল ভেদ করতে নেটবাসীদের একাংশ সিবিআই তদন্তের দাবি তুলেছে।

আরও পড়ুনঃ H-1B নিয়ন্ত্রণ শিথিল করলো ট্রাম্প, আবার আগের চাকরিতে ফেরা যাবে আমেরিকায়

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যু নিয়ে ২ মাস হতে যায় দেশে তোলপাড় চলছে এখনও। তদন্তের ভার দিয়েছে সিবিআই-এর হাতে। শ্রীদেবীর মৃত্যু রহস্য উদ্ঘাটনেও সিবিআই তদন্ত জরুরি বলে মনে করছে নেটবাসীরা।

আরও পড়ুনঃ ঘরের মধ্যে লুকিয়ে বিশাল গোখরো, দেখুন তারপর কি হল

দুঃসংবাদ বলিউডে! শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি সঞ্জয় দত্ত

Sanjay Dutt

আবারও এক দুঃদংবাদ এল বলিউডের অন্দরমহল থেকে। হঠাৎ করে শারীরিক অসুস্থ্যতার কারনে হাসপাতালে ভর্তি সঞ্জয় দত্ত। তিনি শ্বাসক্ষটজনিত সমস্যাতে ভুগছেন।

সম্প্রতি কে. জি. এফ. ২ এর ট্রেলার চঞ্চ হয়েছে। সেখানে সঞ্জয় দত্ত অভিনয় করেছে। এরই মাঝে হঠাৎ তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

তার অসুস্থতার কারণ জানার জন্য এদিন করোনা টেস্ট করান হয়। তাতে টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তবে শ্বাসকষ্ট কমান নাম করছে না। আর তাই দ্বিতীয়বার করোনা টেস্টের জন্য চিকিৎসকগণ তাঁর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করেছেন।

আরও পড়ুনঃ জারী কমলা সতর্কতা, প্রবল বৃষ্টির সম্ভবনা দফায় দফায়, জেনে নিন আপডেট

জানা গিয়েছে, বর্তমানে তিনি মুম্বাইয়ের লীলাবতি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। সূত্রের খবর, আপাতত তিনি স্থিতিশীল।

আরও পড়ুনঃ সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত ‘বাহুবলী’ পরিচালক এসএস রাজামৌলি

সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত ‘বাহুবলী’ পরিচালক এসএস রাজামৌলি

S.S Rajamouli

চেন্নাইঃ এবার করোনায় আক্রান্ত হলেন ‘বাহুবলী’ পরিচালক এসএস রাজামৌলি। আক্রান্ত হয়েছে তাঁর পরিবারও। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ বদলে গেল ৩৪ বছরের শিক্ষানীতি, শুরু হল নতুন যুগের শিক্ষাব্যবস্থা

ট্যুইটারে তিনি জানান, তিনি ও তাঁর পরিবার বর্তমানে চিকিৎসকের পরামর্শমতো বাড়িতেই আইসোলেশনে রয়েছেন। তিনি লেখেন যে, আমার ও আমার পরিবারের সদস্যের কয়েকদিন আগে হাল্কা জ্বর হয়েছিল। পরে জ্বর কমে যেতে নিশ্চিত হতে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করেছিলাম। পরীক্ষায় জানা যায়, আমাদের মৃদু কোভিড-১৯ সংক্রমণ রয়েছে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী এখন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছি।

আরও পড়ুনঃ ধূমপায়ী মানুষের করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কয়েক গুন বেশি, জানালো কেন্দ্র

রিয়া সুশান্তকে ড্রাগ ও ওভারডোজ দিয়েছিলেন, অভিযোগ সুশান্তের বাবার

complain sushant's father

সুশান্তের বাবা রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন, তাঁর মৃত্যুর জন্য রিয়াকে দায়ী করেন তিনি। এর সঙ্গে রিয়ার ভাই ও তাঁর পরিবারের নামও উল্লেখ রয়েছে। তাঁর অভিযোগ রিয়া ও তাঁর পরিবার সুশান্তের টাকা লুঠ করছিল।

রিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি সুশান্তকে পাগল ঘোষণা করানোর জন্যু উঠে পড়ে লেগেছিলেন। সুশান্তের বাবা জানান, তিনি বৃদ্ধ তাই বেশি দৌড়াদৌড়ি করতে পারবেন না তাই তিনি পাটনাতেই এফআইআর দায়ের করেছেন। তাঁর অভিযোগ আগে যে বাড়িটায় বাস করতেন সুশান্ত সেখানে ভুতপ্রেত আছে বলে সেই বাড়ি ছাড়তে বাধ্য করেন রিয়া সুশান্তকে। তারপর বান্দ্রা-এর বাড়িটা ভাড়া নেন তাঁর শেষ গার্লফ্রেন্ড। তিনি সেখানে নিজের পরিবারের লোকদের নিয়ে তাঁর সঙ্গে থাকতেন।

সুশান্তের বাবার অভিযোগ, তাঁর ছেলেকে পাগল করিয়ে অ্যাসাইলামে পাঠানোর তোড়জোড় শুরু করেছিলেন রিয়া। এর জন্য তাঁকে মানসিক অসুস্থতার ওষুধ খাওয়াতে শুরু করেছিলেন রিয়া। প্রথমে তাঁকে ডেঙ্গির ওষুধ বলে মানসিক অসুস্থতার ওষুধ খাওয়াতে শুরু করেছিলেন। তারপর ড্রাগ ও ওভারডোজের জেরে মানসিক স্থিতাবস্থা হারিয়ে ফেলছিলেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ মানসিক অবসাদ বা বাড়তি ওজোন, সবকিছু থেকে মুক্তি পেতে খান আমলকী

রিয়া সুশান্তের মোবাইল নম্বর অবধি বদলে দিয়েছিলেন। যাতে সুশান্ত নিজের পরিবারের কাছ থেকে দূরে থাকেন। সুশান্তের অ্যাকাউন্টের কোটি কোটি টাকা রিয়া ও তাঁর পরিবার গায়েব করে দেন। কোনও ফিল্মের অফার এলে তাঁর নায়িকা রিয়াকেই করতে হবে, এইরকম করতে হবে বলে উস্কাতেন তিনি সুশান্তকে।

সুশান্ত বন্ধু মহেশ শেট্টির সঙ্গে ফার্মিং শুরু করবে বলে ভাবনা চিন্তা করছিলেন তখন রিয়া চরম পদক্ষেপ নেন। সুশান্তের ক্রেডিট কার্ড, বাড়ির কাগজ সব নিয়ে বাড়ি চলে যান। বেরিয়ে যাবার পর সুশান্তের নম্বর ব্লক করেছিলেন তিনি। তিনি হুমকি দিয়েছিলেন সুশান্তকে যদি কোনো বাড়াবাড়ি করেন তবে তাঁর মেডিক্যাল সবকিছু সংবাদমাধ্যমের কাছে ফাঁস করে দেবেন তিনি। আত্মহত্যার আগে খুব অস্বস্তিতে ছিলেন সুশান্ত।

আরও পড়ুনঃ পেঁপে খেয়ে কীভাবে ওজোন কমাবেন জানুন

সাইক্লিং করতে গিয়ে বিপত্তি, আহত হলেন অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত

Rituparna Sengupta

লকডাউনের কারনে বহু দিন ধরে দেশের বাইরে রয়েছেন অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। লকডাউন শুরুর আগে কলকাতা ছেড়ে ছিলেন। এমনিতেই বহু দিন কলকাতায় নেয়, তার মাঝেই নেমে এল এক গুরুতর বিপত্তি। সাইকেল চালাতে গিয়ে ডান হাতের কবজিতে বেকায়দাতে মোচড় লেগেছে।

বর্তমানে অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত রয়েছেন সিঙ্গাপুরে। তিনি চলতি বছরের মার্চ মাসে দেশ ছেড়ে স্বামী সঞ্জয় ও রিসোনাকে নিয়ে ছুটি কাটানোর জন্য গিয়েছিলেন সিঙ্গাপুরে। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারনে গোটা দেশ জুড়ে শুরু হয় লকডাউন। লকডাউনের ফলে পরিবারের সাথে একসঙ্গে ভালো সময় কাটাচ্ছেন। ফলে তার পর থেকে আর দেশে ফেরা হয়নি তাদের। কিন্তু তার মাঝেই ঘটে গেল অঘটন!

আগাগোড়াই অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা বেশ স্বাস্থ্য সচেতন। তাই বরাবরের মতো নিজেকে ফিট রাখতে নিয়মিত এক্সারসাইজ করে থাকেন। সেই সুবাদে সাইকেল চালাতে গিয়েই ঘটেছে এই ঘটনা।

আরও পড়ুনঃ দিদি করোনাকে হারিয়ে বাড়ি ফেরার পর রাস্তার মধ্যে তুমুল নাচ বোনের

জানা গেছে, সাইকেল চালানোর সময় ডান দিকে ইউ টার্ন নিতে গিয়েছিলেন। সেই সময় সামলাতে না পেরে পড়ে গিয়ে চোট লাগে ডান হাতের কবজিতে। তারপরই অবশ হয়ে পড়ে ডান হাত ও আঙুল।

লকডাউনের জন্য শুটিং বন্ধ হয়ে গেলেও নিজেকে সব সময় ব্যস্ত রাখতে ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে ভক্তদের উপহার দিয়েছেন বিভিন্ন বিষয়ের ভিডিও। তবে চোট পাওয়ার জন্য এখন সবকিছুই বন্ধ।

আরও পড়ুনঃ জঙ্গলে মুখোমুখি হল বাঘ ও পাইথন, দেখুন তারপর কী ঘটলো

এবার হাসপাতালে ভর্তি হলেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন ও তাঁর কন্যা আরাধ্যা

Aishwarya Rai Bachchan with doughter Aaradhya Bachchan

মুম্বইঃ এবার করোনায় আক্রান্ত ঐশ্বর্য রাই বচ্চন ও তাঁর কন্যা আরাধ্যাও। এদিন তাঁদের দুজনকেই নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরেও তাঁরা বাড়িতেই ছিলেন। মৃদু উপসর্গ হওয়ার জন্য তাঁদের চিকিৎসা চলছিল বাড়িতে থেকেই। এখনও হাসপাতালে ভর্তি অমিতাভ বচ্চন ও তাঁর ছেলে অভিষেক।

ঐশ্বর্য ও আরাধ্যার করোনার উপসর্গ গুরুতর নয় তেমন। দুজনে বাড়িতেই আইসোলেশনে ছিলেন। কিন্তু, তাঁদের এদিন সন্ধ্যায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

করোনায় আক্রান্ত অমিতাভ বচ্চনের শারীরিক অবস্থা আগের থেকে এখন ভালো। অভিষেক বচ্চনও আগের থেকে এখন ভালো আছেন।

আরও পড়ুনঃ দু’দিনের লাদাখ ও কাশ্মীর সফরে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং

শোনা যাচ্ছে অভিষেক বচ্চনকে খুব শিগগিরই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হতে পারে। তবে অমিতাভ বচ্চনের বয়স ও মেডিক্যাল হিস্ট্রির কথা মাথায় রেখে তাঁকে আরও কিছুদিন নানাবতী হাসপাতালের চিকিৎসকেরা পর্যবেক্ষণে রাখবেন।

আরও পড়ুনঃ ১ আগস্ট থেকে ট্যাক্সিতে উঠলেই ভাড়া ৫০ টাকা

নিজেকে ঈশ্বরের কাছে সমর্পণ করেছেন, বললেন বিগ বি

Amitabh Bachchan

মুম্বইঃ নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বিগ বি। হাসপাতালে থেকেও নিজের শারীরিক অবস্থার খবরাখবর অনুরাগীদের দিয়ে চলেছেন বিগ বি। ট্যুইটারে তিনি নারায়ণ ও দেবী লক্ষ্মীর ছবি দিয়ে লিখেছেন, নিজেকে ঈশ্বরের কাছে সমর্পণ করেছি।

আরও পড়ুনঃ ঠোঁট কালো হচ্ছে সিগারেট খেয়ে, ঘরোয়া টোটকায় তা দূর করুন

নানাবতী হাসপাতাল সূত্রে খবর অমিতাভ বচ্চন ও তাঁর ছেলে অভিষেক বচ্চন, দুজনের অবস্থাই এখন ভালো করোনা থেকে সেরে উঠেছেন তারা। তবে এখনও ৭ দিন তাদের হাসপাতালেই থাকতে হবে।

আরও পড়ুনঃ বাড়ির বাইরে থাকলে স্যানিটাইজার কিভাবে ব্যবহার করবেন! জেনে নিন