করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী সেখ হাসিনা-র চার পরামর্শ

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সেখ হাসিনা আজ করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় পরামর্শ ও আহব্বান সংকলিত চারটি বার্তা জনগনের কাছে পৌছে দিতে চান। প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকার এবং সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই বার্তাগুলো প্রচারের জন্য অনুরোধ জানান।

প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত বার্তাগুলো হচ্ছেঃ

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় আপনার করনীয়ঃ প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বের হবেন না। বাইরে থেকে বের হলে মানুষের ভিড় এড়িয়ে চলুন। যেখানে সেখানে থুতু ফেলবেন না, ঘন ঘন সাবান দিয়ে বা স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধুতে হবে। হাঁচি, কাশির সময় রুমাল বা টিস্যু পেপার দিয়ে নাক-মুখ ঢেকে নিন। স্বাস্থ বিধি মেনে চলুন। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, নিরাপদ থাকুন।

করোনা ভাইরাসে ভীত হবেন নাঃ করোনা ভাইরাস দ্রুত ছড়ানোর ক্ষমতা রাখলেও ততটা প্রানঘাতী নয়। এই ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষই অনেকাংশেই কয়েকদিনের মধ্যে সুস্থ হয় ওঠে। নানা রোগে আক্রান্ত এবং বয়স্ক মানুষদের জন্য এই ভাইরাস বেশ প্রানসংহারী হয়ে উঠেছে। আতঙ্কিত হবেন না। আপনার পরিবারের সদস্য এবং প্রতিবেশীরা যাতে সংক্রামিত না হন, সে বিষয়ে সতর্ক থাকুন। আপনার সচেতনতা আপনাকে, আপনার পরিবারকে এবং সর্বোপরি দেশের মানুষকে সুরক্ষিত রাখবে।

সুরক্ষণ ও চিকিৎসা সামগ্রীর ঘাটতি নেইঃ স্বাস্থ কর্মীদের সুরক্ষার বিষয়ে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। পিপিই-সহ পর্যাপ্ত পরিমান সুরক্ষা সরঞ্জাম সংগ্রহ করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য পর্যাপ্ত কিট মজুত রয়েছে। ঢাকায় চারটি স্থানে এবং চট্টগ্রামে করোনা ভাইরাস পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কেউ গুজব ছড়াবেন না।, গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সহনশীল ও সংবেদনশীল হোনঃ করোনা ভাইরাসের কারনে শুধু বাংলাদেশ নয়, গোটা বিশ্ব এক সঙ্কটময় সময় অতিক্রম করছে। এ সময়ে আমাদের সহনশীল এবং সংবেদনশীল হতে হবে। বাজারে কোনো পন্যের ঘাটতি নেই, দেশের অভ্যন্তরের এবং বাইরের সঙ্গে সরবরাহ চেইন অটুট রয়েছে। অযৌক্তিকভাবে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি করবেন না। সীমিত আয়ের মানুষকে কেনার সুযোগ দিন।

Leave a Comment