২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত ৩৫২৫, এবং মৃতের সংখ্যা ১২২

নয়াদিল্লিঃ করোনা আক্রান্তের গতিকে বশে আনা যাচ্ছেনা কিছুতেই। দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭৪,২৮১। গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫২৫। এবং মৃতের সংখ্যা ১২২। ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে দিন দিন। থামার নাম নিচ্ছেনা। দেশে তৃতীয় দফার লকডাউন চলছে। এই লকডাউনের মেয়াদ ১৭ তারিখ পর্যন্ত। গতকাল রাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রমোদী জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিলেন। তিনি লকডাউন বাড়ানোর ব্যপারে ইঙ্গিত দেন কাল।

আরও পড়ুনঃ কী এই আত্মনির্ভর ভারত অভিযান?

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রমোদী দেশের এই আর্থিক পরিস্থিতি থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য ২০ লক্ষ টাকার আর্থিক প্যাকেজ এর ঘোষণা করেন। ১৭ মে এর পর চতুর্থ দফার লকডাউন-এর বিধিনিষেধ একেবারে অন্যরকম হবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছেন, দেশে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৭,৪৮০ জন, এবং এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২৪,৩৮৬ জন। দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্তের সংখ্যা মহারাষ্ট্রে। সেখানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এখানে আক্রান্তের সংখ্যা ২৪,৪২৭ জন, এবং মৃতের সংখ্যা ৯২১ জন। মহারাষ্ট্রের পরে যে রাজ্যে বেশি করোনা আক্রান্তের সংখ্যা গুজরাত ৮৯০৩, তামিলনাড়ু ৮৭১৮, দিল্লি ৭৬৩৯ জন।

আরও পড়ুনঃ আগস্টেই ভারতের বাজারে আসতে পারে করোনার ওষুধ

মহারাষ্ট্রের মধ্যে যে শহরে সবচেয়ে বেশি করোনা বাসা বেঁধেছে তা হল মুম্বই। সারা দেশের করোনা আক্রান্তের ১৭ শতাংশ করোনা রোগী আছে বাণিজ্য নগরে। গতকাল এই শহরে ৩০ জন মারা গেছে করোনায়। মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের ৬০ শতাংশই মুম্বই-এ। এই শহর একটি মৃত্যুর শহর হয়ে উঠেছে। মুম্বই-এ নতুন নতুন এলাকায় করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে।

Leave a Comment